সাগর-রুনি হত্যা, র‍্যাবের আশ্বাস, কিছুই গোপন করা হবে না

Published 06/07/2012 by idealcollect

নিহত সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনির শিশুপুত্র মাহির সরওয়ার মেঘের খৎনায় র‍্যাবের বাধা দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে বাহিনীটি বলেছে, শিশুটির মামার বক্তব্য বানোয়াট।

এই হত্যাকাণ্ডের তদন্ত শেষে ঘটনার বৃত্তান্ত জাতির সামনে প্রকাশ করা হবে বলেও জানিয়েছে বাহিনীটির একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা।

র‍্যাবের মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক এম সোহায়েল শুক্রবার রাতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “আমি সবাইকে মামলার শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে অনুরোধ করবো। তারপর তদন্তের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কী পাওয়া গেছে তা জাতির সামনে তুলে ধরবো। কোনো কিছু গোপন করা হবে না।”

এর আগে মেঘের মামা, নিহত মেহেরুন নাহার রুনির ভাই নওশের রোমান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের কাছে অভিযোগ করেন, র‍্যাব কর্মকর্তারা তার পরিবারের সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদের নামে হয়রানি করছে।

হয়রানির উদাহরণ দিতে গিয়ে নওশের বলেন, “মেঘের খৎনা করতেও মানা করেছে র‍্যাব।”

এ বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হওয়ার তিন মাসেও ঘটনার রহস্য উদঘাটন না হওয়ায় তদন্তকারী বদলে উচ্চ আদালতের নির্দেশে মামলাটির তদন্তের দায়িত্ব পায় র‍্যাব।

স¤প্রতি নিহত রুনির পরিবার সংবাদ মাধ্যমের কাছে অভিযোগ করে তদন্তের নামে র‍্যাব তাদেরকে হয়রানি করছে।

অভিযোগের এক পর্যায়ে শুক্রবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে রুনির ভাই নওশের বলেন, “স্কুলের ছুটিতে মেঘের খৎনা সেরে ফেলতে চাইলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এএসপি জাফর উল্লাহ ওপরের নির্দেশের কথা বলে খৎনা না করাতে বলেন। এ বিষয়ে র‍্যাবের মুখপাত্র এম সোহায়েলের সঙ্গে কথা বলতে গেলে তিনিও খৎনা না করাতে বলেন।”

অভিযোগ সঠিক নয় দাবি করে র‍্যাব কর্মকর্তা কমান্ডার সোহায়েল বলেন, “মুসলমানির বিষয়টি একান্ত তাদের পারিবারিক এবং মামলার সঙ্গে কোনোভাবেই সম্পৃক্ত নয়, ফলে মেঘের মুসলমানি হলো কি হলো না এটা র‍্যাবের বিবেচ্য বিষয় নয় এবং দেখারও নয়।”

তিনি বলেন, মেঘের মুসলমানির বিষয়টি নিয়ে র‍্যাব কখনই কারো সঙ্গে কথা বলেনি কেউ র‍্যাবের সঙ্গেও কথাও বলেনি।

র‍্যাবের মুখপাত্র বলেন, “পুরোটাই মনগড়া বক্তব্য।”

নওশের র‍্যাবের বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগ এনে বলেন, “জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আমার মাকে আগামী সোমবার র‍্যাব সদর দপ্তরে যাওয়ার জন্য নোটিশ দেওয়া হয়েছে।”

এর আগেও রুনির মা নুরুন্নাহার মির্জাকে র‍্যাব কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল র‍্যাব।

“আমরা র‍্যাবকে অতীতে বহুবার অনুরোধ করেছি যে জিজ্ঞাসাবাদ করতে হলে বাসায় এসে জিজ্ঞাসাবাদ করুন। আম্মাও সেখানে যেতে চান না”, বলেন নওশের।

“জবাবে র‍্যাব আমাদের জানায়, দরকার হলে আমরা আপনাকে সারাদিন অফিসে বসিয়ে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ করবো। কারণ আমরা তা করতে পারি, ” র‍্যাবের বিরুদ্ধে রূঢ় আচরণের অভিযোগ নিহত রুনির ভাইয়ের।

এসব বিষয়ে র‍্যাবের বক্তব্য নিতে কয়েক দফা যোগাযোগ করা হলে র‍্যাব মুখপাত্রকে পাওয়া যায়নি।

নওশেরের অভিযোগ প্রকাশের পর র‍্যাব মুখপাত্র খৎনায় বাধা দেওয়ার খবর অস্বীকার করে মামলা ও তদন্তের বিষয়ে বাহিনীর অবস্থান ব্যাখ্যা করেন।

সোহায়েল আরো বলেন, “সাগর-রুনি হত্যা মামলাটি অত্যন্ত স্পর্শকাতর একটি মামলা। র‍্যাবের প্রতি আস্থা আছে বলেই হাইকোর্ট এই মামলাটি আমাদেরকে তদন্তের নির্দেশে দিয়েছে, যা র‍্যাব সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করছে।”

সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে সবার সহযোগিতা কামনা করে তিনি বলেন, “এমন কোনো কাজ করা বা কথা বলা কারো জন্যই ঠিক হবেনা যা মামলার তদন্তে প্রভাব ফেলবে অথবা সাধারণ মানুষ বিভ্রান্ত হবে।”

এটিএন বাংলার মেহেরুন রুনি এবং তার স্বামী মাছরাঙা টেলিভিশনের সাগর সরওয়ার ১১ ফেব্রুয়ারি নিজেদের শয়নকক্ষে খুন হন।

এখনও এই ঘটনায় কেউ গ্রেপ্তার না হওয়ায় নিহত দম্পতির সহকর্মী সাংবাদিক সমাজ রাজপথে আন্দোলন করছে।

News From-বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: